For English Version
বুধবার, ১২ মে, ২০২১, রেজি: নং- ০৬
Advance Search
হোম বেড়িয়ে আসুন

চর কুকরি মুকরিতে ঝুলন্ত সেতু-হোম স্টে সার্ভিস

Published : Monday, 22 February, 2021 at 12:09 PM Count : 158
অবজারভার সংবাদদাতা

ভোলার চরফ্যাশনের সাগরপাড়ের চর কুকরি মুকরির সবুজ বন, সাগরের নির্মল বাতাস সঙ্গে অতিথি পাখির জলকেলির অপরূপ দৃশ্য মুগ্ধ করে প্রকৃতি প্রেমীদের।

পর্যটন মৌসুমে কাছ থেকে স্রোতস্বিনী জলের ঢেউ তরঙ্গ, সবুজের হাতছানি, ধূসর বালুচরে লাল কাঁকড়াদের আধিপত্য, মায়া হরিণের দল আর অসংখ্য নাম না জানা পাখ-পাখালি ও মেঘনা-তেঁতুলিয়ার প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ করতে প্রচুর পরিমাণে পর্যটক সমাগম দ্বীপটিকে পর্যটকদের তীর্থভূমিতে পরিণত করেছে।

আর এই পর্যটকদের বারতি বিনোদন দিতে নতুন রূপে সাজানো হয়েছে চর কুকরি মুকরিকে। যুক্ত করা হয়েছে রেস্ট হাউজ, বনের মাঝে ঝুলন্ত সেতু, জিপ ট্রাকিং, রেস্টিং বেঞ্চ, থাকার জন্য হোম-স্টে সাভিসসহ নানা প্রকল্প। এসব প্রকল্পে কর্মসংস্থান হয়েছে হাজারো মানুষের।

একপাশে সমুদ্র আরেক পাশে ম্যানগ্রোভ বনাঞ্চল। মাঝখানে বেলাভূমি। দিগন্ত বিস্তৃত অপরুপ এ দৃশ্য কুইন আইল্যান্ড অব ব্যাঙ্গল নামে পরিচিত চর কুকরি মুকরি। চরটি পর্যটকদের কাছে আরও আকর্ষণীয় করতে পিকেএসএফের আর্থিক সহযোগিতায় বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা (এফডিএ) পরিবার উন্নয়ন সংস্থার ইকো-ট্যুরিজম প্রকল্পের মাধ্যমে নেয়া হয়েছে নতুন রূপে সাজানো এই উদ্যোগ।

তারুয়ার দ্বীপ ও নারিকেল বাগানে পর্যটকদের জন্য ল্যান্ডিং স্টেশন, রেস্টিং বেঞ্চসহ নানা ধরনের সুবিধার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এতে পাল্টে গেছে চর কুররি মুকরির দৃশ্যপট। এ প্রকল্পের কারণে কর্মসংস্থান হয়েছে আড়াই হাজার মানুষের।

পিকেএসএফ'র নির্বাহী পরিচালক কামালউদ্দিন জানান, এই দ্বীপের ৮০ শতাংশ মানুষের পেশা মৎস্য আহরণ। কিন্তু বছরের প্রায় ৫ মাস তারা কোন অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকে না। এখন তারা বিভিন্ন ভাবে ইকোট্যুরিজমের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে। তাদের অর্থনৈতিক অবস্থার উন্নতি হয়েছে।

২০১৯ সালে পল্লী কর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশন ১ কোটি ১৩ লক্ষ টাকা ব্যয়ে ইকোট্যুরিজম প্রকল্পের আওতায় সাগর ও বনকে নয়নারিভাম রুপে উপযোগ্য করে তুলতে নানা উদ্যোগ গ্রহণ করে।  ২০২১ সালে সুফল পেতে শুরু করে পর্যটক ও স্থানীয়রা।

পিকেএসএফ'র সিনিয়র মহাব্যবস্থাপক ও সমন্বয়কারী ড. আকন্দ মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম বলেন, আমরা চিন্তা করছি ট্রি হাউজ, ট্রি রেষ্টুরেন্ট করার। সরকারের অনুমতি পেলে পর্যটকদের জন্য একটি মিনি চিড়িয়াখানার কাজ হাতে নেয়া হবে। সার্ভিস প্রোভাইডারদের দক্ষতা বাড়াতে হবে। যেহেতু তাদেরকে ফরেনার ডিল করতে হবে।

সরকারি ও বেসরকারি উদ্যোক্তারা এগিয়ে এলে চর কুকরি মুকরি একটি অন্যতম আকর্ষণীয় পর্যটন স্থান হতে পারে বলে মনে করেন জনপ্রতিনিধি।

চর কুকরি মুকরি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল হাসেম মহাজন বলেন, পর্যটকদের আবাসিক সমস্যার সমাধানকল্পে আমি আহ্বান জানাচ্ছি। পর্যটকদের সুযোগ সুবিধা বাড়লে চর কুকরি মুকরি অর্থনীতিতে ভূমিকা রাখবে।

-এসএফ/এমএ


« PreviousNext »



সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
Editor : Iqbal Sobhan Chowdhury
Published by the Editor on behalf of the Observer Ltd. from Globe Printers, 24/A, New Eskaton Road, Ramna, Dhaka.
Editorial, News and Commercial Offices : Aziz Bhaban (2nd floor), 93, Motijheel C/A, Dhaka-1000. Phone :9586651-58. Fax: 9586659-60; Online: 9513959 & 01552319639; Advertisemnet: 9513663
E-mail: [email protected], [email protected], [email protected], [email protected],   [ABOUT US]     [CONTACT US]   [AD RATE]   Developed & Maintenance by i2soft